৪ নম্বর হুশিয়ারি সংকেত পাওয়ার পরও মানছেন না পর্যটকরা

  কক্সবাজারকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর

কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত, আবহাওয়া অধিদপ্তরের, bd news.bd news today,news24 live,bangla news.bangla newspaper,bd job news,প্রথম আলো,চট্টগ্রাম নিউজ,ctg news, কক্সবাজারকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর.
কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত 

সাপ্তাহিক ছুটির কারণে বিপুলসংখ্যক পর্যটনের আগম দেখা দিছে সমুদ্র সৈকতে।এর মধ্যে নতুন করে বার্তা দিল আবহাওয়া অফিস। উপকূলীয় অঞ্চলের ৪ নাম্বার সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।কিন্তু কক্সবাজারে সংকেত পাওয়ার পরও মানছেন না পর্যটকরা।বাধ বিপত্তি পার করে নামছে সৈকতের পানিতে।সমুদ্র খারাপ আবহাওয়া, সমুদ্র উত্তাল,বিশাল বিশাল ডেউ আছড়ে পরছে সমুদ্রের উপকূলে।পর্যটকদের সতর্ক সংকেত হিসাবে সৈকতে টাঙানো হয়েছে লাল পতেকা।তবে ৪ নম্বর হুশিয়ারি সংকেত থাকা শর্তেও সৈকতে চলে আসলাম।


আশরাফ হোসেন নামের এক পর্যটক বলেন,বৃহস্পতিবার থেকে হোটেল বসে আছি আবহাওয়ার পরিস্থিতিতে খারাপের কারণে।কিন্তু কক্সবাজার এসে এভাবে পরিস্থিতি খারাপ হবে জানতাম না।তবে ৪ নম্বর হুশিয়ারি সংকেত থাকা শর্তেও সৈকতে চলে আসলাম। 


আইশা নামের অন্য এক পর্যটক বলেন,হোটেলে তেমন  ভালো লাগছিল না। তাই বৃষ্টি ভিজে দিনে বেড়িয়ে সৈকতের  বালিয়াড়ি হাঁটছি আর সৈকতের বিশাল বিশাল ঢেউ গুলাকে উপভোগ করছি।দেখতে খুবই সুন্দর লাগছে।


কাশেম,হালিম বলেন,খারাপ আবহাওয়া কারণে আনন্দ করা গেল না।সব কিছু উপেক্ষা করে সৈকতে নেমে পড়েছিলাম গোসল করতে।কিন্তু টুরিস্ট পুলিশ ও লাইফ গার্ড সকলের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে সৈকত থেকে তুলে দিল।


২ দিন ধরে বেকারত্ব সময় পার করছেন সৈকতের ফটোগ্রাফার ও হকাররা খারাপ আবহাওয়া কারণে।কিন্তু তাদের পরিবার চলে পর্যটকদের আগমনের উপর।সালমান ফারছি নামের এক জন ফটোগ্রাফার বলেন,খারাপ আবহাওয়া সব বন্ড বন্ড করে দিল। ৪ নম্বর সতর্ক সংকেত থাকার কারণে সৈকতে নামতে বাধা দেওয়া হচ্ছে পর্যটকদের।এর ফলে পর্যটকদের ছবি তুলা হচ্ছে না বেরকা সময় চলছে।


সি-সেইভ লাইফ গার্ড সংস্থার ইনচার্জ মোহাম্মদ জহির বলেন,আবহাওয়া অফিস  কক্সবাজারে ৪ নম্বর হুশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে সমুদ্রের গভীর নিম্নচাপের কারণে।কিন্তু অনেক পর্যটক তা অমান্য করে সৈকতে নেমে পড়তেছে।না নামার জন্য আমাদের পক্ষ থেকে লাল পতাকা দেওয়া হয়েছে ও মাইকিং করা হয়েছে।আমরা যতটুকু পারি পর্যটকদের নিরাপত্তা দেওয়ার চেষ্টা করছি।


কক্সবাজার আবহাওয়া অধিদপ্তরের সহকারী আবহাওয়াবিদ আবদুর রহমান বলেন,কক্সবাজারকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। আর গত ২৪ ঘণ্টায় কক্সবাজারে ১১৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।গভীর নিম্নচাপের কারণে সাগর উত্তাল রয়েছে।জোয়ারের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ২-৩ ফুট উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে।এই রকম বৃষ্টিপাত আগামী দু-একদিন অব্যাহত থাকবে।

Post a Comment

Previous Post Next Post